শুরুতেই বলে রাখতে চাই, যাদের হার্ট দুর্বল তাদের এই মুভি না দেখাই উত্তম

২০১০ সালের আজকের এই দিনে রিলিজ হয়েছিলো টান টান উত্তেজনাকর থ্রিলারে পরিপূর্ণ কোরিয়ান মাস্টারপিস ফিল্ম “No Mercy”.। কোরিয়ানরা জাতিগতভাবে প্রতিশোধ পরায়ণ।

কোরিয়ান মুভির এই যে বিভৎস ভায়োলেন্স এটা কিন্তু হাতে তৈরী করা নাহ। এটা তাদের জাতিগতভাবে ছিলো। প্রতিশোধ কত ভয়ংকর হতে পারে তার জ্বলন্ত উদাহরণ NO MERCY.. মুভিটি একবার দেখার পর এই মুভির ট্রমা আপনাকে গিলে খাবে।NO MERCY পৃথিবীতে এক পিসই!

শুরুতেই বলে রাখতে চাই, যাদের হার্ট দুর্বল তাদের এই মুভি না দেখাই উত্তম। কারণ মুভির প্রয়োজনে বেশকিছু লোমহর্ষক এবং কাটাকাটির দৃশ্য দেখানো হয়েছে যা আপনি সহ্য নাও করতে পারেন। তবে তার পাশাপাশি এটাও বলবো, NO MERCY না দেখলে আপনি বুঝবেনই নাহ প্রতিশোধ কাকে বলে, কত প্রকার ও কি কি।।

  • MOVIE NAME- NO MERCY
  • GENRE- THRILLER, CRIME,SUSPENSE,ACTION
  • Runtime -2hr 1min
  • DATA AIRED-JAN 7,2010
  • COUNTRY -SOUTH KOREA
  • LANGUAGE -KOREAN
  • BSUB-AVAILABLE
  • IMDB-7.5/10
  • PERSONAL -❤/10

🚫🚫★★ স্পয়লার এলার্ট★★🚫🚫

মানুষ মাত্রই ভুল।। মানুষ তার জীবনে ভুল করে এবং সেই ভুলের জন্য কখনো শাস্তি পেয়ে থাকে আর কখনো বা তাদের ভুলের জন্য ক্ষমা করে দেওয়া হয়।। কিন্তু কোন পরিস্থিতিতে একটা মানুষকে ক্ষমা করা মৃত্যুর চেয়ে কঠিন হয়ে পড়ে? মুভির নাম NO MERCY যার বাংলা ক্ষমা নেই।

নামটা পড়ে ধারনা করার কথা এটি রিভেঞ্জ টাইপের কোনো মুভি। আর এই মুভির গল্পজুড়ে রয়েছে এক নির্মম প্রতিশোধ….যে মুভিটি মুহুর্তে বদলে দেবে আপনার সব থ্রিলার মুভি দেখার অভিজ্ঞতাকে।। তো আর দেরী কিসের।মুভি দেখার আগে একটু ডুব দিন এই অসাধারণ ক্রাইম, থ্রিলার গল্পের সামান্য ঝলকানিতে।

একজন খুব সনামধন্য ফরেনসিক ডাক্তার যে এই পেশায় যথেষ্ট সম্মান কুড়িয়েছে।।তার একটি মাত্র কন্যা সন্তান আছে আর স্ত্রী অনেক আগেই মারা গিয়েছে।।
অবসরে যাবার চিন্তাভাবনা করতেছেন কেননা তার মেয়ে ১৩ বছর পর আমেরিকা থেকে ফিরতেছে।

কিন্তু একদিন এক নদীর তীরে একটি মেয়ের খুন হওয়া লাশ পাওয়া যায় যেটি নগ্ন অবস্থায় ছিলো যার মাথা, দুটো পা কাটা অবস্থায় ছিলো কিন্তু একটি হাত মিসিং ছিলো যা ঘটনাস্থলের ডিটেকটিভদের আশ্চর্য করে।। এই কেসের ময়নাতদন্তের জন্য ডাক পরে ফরেনসিকের।

🚫🚫★★প্লট★★★🚫🚫

শেষ পর্যন্ত তিনি এই বড়ির এনালাইসিস করতে রাজি হন এবং মনে করেন এটিই তার জীবনের শেষ কাজ।।ঘটনার রহস্য উন্মোচনে সদ্য জয়েন করা ডিটেকটিভ
MIN কে দায়িত্ব দেওয়া হয় যে কিনা ফরেনসিকের প্রাক্তন ছাত্রী।খুনের প্রমাণ সংগ্রহ করতে বেশ বেগ পেতে হয়নি এবং খুনী তা নিজেই স্বীকার করে নেন।। তবে ঘটনার মোড় নেই তখনি যখন ডাক্তার প্রিজন সেলে খুনির সাথে দেখা করতে যায়।

খুনী জানায় তার মেয়েকে কিডন্যাপ করেছে সে। এই অবস্থায় দিশোহারা হয়ে পড়েন ডাক্তার। কি করবেন ঠিক করতে পারছিলেন নাহ। খুনী শর্ত বেধে দেয়, তার বিরুদ্ধে যত অভিযোগ আছে তা মিথ্যে প্রমান করে দিয়ে তিনদিনের মধ্যে জেল থেকে বের করে দিলে তবেই সে তার মেয়েকে জীবিত ফিরে পাবে।। ডাক্তার খুনীর কাছে অসহায় হয়ে পড়েন।।আর এখান থেকেই মুভির আসল টুইস্ট শুরু।

নিজে এমন সম্মানিত পেশায় থেকে তিনি কি খুনীর শর্ত মেনে নিবেন? কি করে খুনীকে নির্দোষ প্রমাণ করবেন?? খুনী কেনো দোষ স্বীকার করে ডাক্তারের জীবন নিয়ে এরকম ছেলেখেলা করছে?

ঘটনার অনেক গভীরে গিয়ে ডাক্তার জানতে পারে বহু পুরোনো এক কেসকে কেন্দ্র করেই এই প্রতিহিংসামূলক নির্মম প্রতিশোধের শুরু করেছে খুনী।।সেই কেসে কি হয়েছিলো যা খুনীকে এমন উন্মাদ করে দিয়েছে?

কেনই বা ডাক্তারের প্রতি এই প্রতিশোধ।? ডাক্তার কি তার মেয়েকে খুঁজে পাবে? আপনি যখন ভাববেন টুইস্ট শেষ ঠিক সেখান থেকে আবার টুইস্ট শুরু হবে যেটা আপনার মস্তিষ্ককে ঠিক ১৮০ ডিগ্রি কোণে ঘুরিয়ে দিবে।। এরকম অনেক প্রশ্নের উত্তর জানতে এবং পরদে পরদে টুইস্ট পেতে এই মুভিটি দেখতে বসুন যেরকম মুভি আপনি দেখেন নি, কল্পনাও করেননি।।

🚫★★ মুভির টেকনিক্যাল দিক★★★ 🚫

কোরিয়ান মুভি মানে যেখানে মাস্টারপিসের গুদাম সেখানে NO MERCY আপনাকে শিখাবে মাস্টারপিস মানে কি।।কোরিয়ানদের কেনো থ্রিলার মুভি রাজা বলা হয়ে থাকে এই মুভি তার আরেকটি প্রমাণ।

তাই কোরিয়ান থ্রিলার জনরার মুভি নিয়ে নতুন করে কিছু বলবার নাই।।রাইটার হোক কিংবা ডিরেক্টর সবগুলোই যেন এক একটা মাস্টারপিস। আর মুভির কি প্লট।

স্টাচু হয়ে দেখতে হয় এত মুগ্ধকর। এই মুভিতেও পরিচালক তার বেস্ট টাই ঢেলে দিয়েছে। দুর্দান্ত স্ক্রিনপ্লের সাথে অসাধারণ সিনেমাটোগ্রাফি আপনাকে পুরো সময়ে স্ক্রিনে চোখ আটকে রাখতে বাধ্য করবে।

🚫🚫★অভিনয়+ বিজিএম★★🚫🚫

মুভির প্রত্যেক আর্টিস্টদের অভিনয় মনোমুগ্ধকর ছিলো।। মুভির এক-একটি ভয়ানক উত্তেজনার মুহুর্তে ব্যাক গ্রাউন্ড মিউজিক যেন রক্তে পুরো হিমশীতলতা ধরিয়ে দিচ্ছিলো।এককথায় অসাধারণ ❤

🚫🚫★★মুভিটির মেসেজ ★★🚫🚫

ইচ্ছাকৃতভাবে হোক কিংবা পরিস্থিতির স্বীকারে হোক, অন্যের আপনজনকে কেড়ে নেওয়ার আগে মনে রাখবেন আপনারও আপনজন আছে নইলে আপনার ক্ষমা নেই।।

🚫🚫★★শেষ করতেসি মুভির প্রিয় দুইটো ডায়ালগ দিয়ে★★🚫🚫

১.অতীতকে ভুলা যায় কিন্তু কখনো মুছে ফেলা যায় নাহ।

২.মৃত্যুর চেয়েও কঠিক কি জানো? ক্ষমা করা।।কারণ অন্তরে জ্বলতে থাকা ক্ষোভের আগুন নিভাতে পেরিয়ে যায় এক মহাকাল!. আজকে সহ তৃতীয়বার দেখা।কারো দেখা না থাকলে অনেক কিছুই মিস করে গেছেন এতদিনে।আজকের ওয়াচিংলিস্টে রাখতে পারেন।।হ্যাপি ওয়াচিং❤ধন্যবাদ

Leave a Reply