কোরিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি একটার পর একটা মাস্টারপিস বের করে

সামান্য স্পয়লার হারামি(২০২০) চিত্রনাট্য এবং পরিচালনায়ঃ শাম মাদিরাজু শ্রেষ্ঠাংশেঃ রিজওয়ান শেখ, ধানাশ্রী পাটিল, এমরান হাশমি মুম্বাই এর রেলস্টেশনে এক পকেটমার গ্যাং চালায় “সাগর ভাই”(এমরান হাশমি)। সমস্ত বেওয়ারিশ বাচ্চাদের নিয়েই তার দল। আর এখানে নাম মনে রাখার জন্য সবার শরীরে একটি করে সংখ্যা ট্যাটু করে রাখা হয়। যার মধ্যে একজনের শরীরের ট্যাটু ৫৫ (পাচপান)।

এই পাচপান ই গল্পের মূল নায়ক পাচপান মানুষের পকেট মারে। এবং ভারতীয় জাতীয় পরিচয় পত্র গুলোও কালেক্ট করে। তারপর তাদের ফলো করে। দূর থেকে তাদের বাসায় ওয়াচআউট করে। এবং দেখে, হারানোর পর তাদের রিয়েকশন।

একদিন এক লোকের পকেট থেকে অনেক মোটা অংকের টাকা মারে সে। এবং ওয়াচআউট শুরু করে। পরে জানতে পারে, তার বড় মেয়ের বিয়ের জন্য ধার করে আনা টাকা এটা।

লোকটি পরদিন রেলস্টেশনে ট্রেনের নিচে ঝাপ দিয়ে আত্মহত্যা করে। ব্যাপার টা পাচপান এর ভেতর টা নাড়িয়ে দেয়। সে ঠিক করে ঐ লোকটির পরিবারের কাছে তার সব টাকা ফিরিয়ে দেয়ার। কিন্তু টাকা তো ইতোমধ্যে সাগর ভাইয়ের কাছে।

তাই সে তাদের গ্যাং এর কাছ থেকে পাওনা টাকা গুলো জমিয়ে জমিয়ে পরিশোধ করতে থাকে এদিকে সে প্রেমে পরে যায়, ঐ আত্মহত্যা করা লোকটির মেয়ের শেষে কি হয়?

সাগর ভাইয়ের সাথে গাদ্দারীর প্রতিশোধ সাগর কিভাবে নেবে

মেয়েটিই যখন জানতে পারবে এই ছেলেই তার বাবার মৃত্যুর কারণ। তখন কি হবে? এদিকে এই পাপের জগৎ থেকে বার হয়ে একজন ভালোমানুষ হয়ে বাঁচতে চাওয়ার যে তীব্র আকাঙ্খা পাচপান এর, সে কি পারবে সেই নতুন জীবন শুরু করতে? জানতে হলে দেখতে হবে “হারামী” গল্পে নতুনত্ব আছে। টিপিক্যাল বলিউড কমার্শিয়াল মুভি না।

মুম্বাই এর ঝাঁ চকচকে গ্ল্যামারাস দুনিয়ার বাইরেও যে একটা অন্ধকার দিক আছে সেটা এখানে অপূর্ব ভাবে তুলে ধরা হয়েছে। এমরান হাশমি চিরকাল ই চরিত্রের প্রয়োজনে সব করতে পারেন। ইদানিং তিনি মেথড এক্টর হয়ে যাচ্ছেন। চরিত্রের প্রয়োজনে নিজেকে চেঞ্জ করা শুরু করেছেন। অভিনয় আগে থেকেই ভাল হলেও এখন আরো নিখুঁত হচ্ছে।

মোটামুটি সবাই এখানে রিয়ালেস্টিক অভিনয় করেছে। বস্তির গ্যাংদের দেখে মনে হয় নি এরা অভিনয় করছে। মনে হচ্ছে বাস্তবেই সব কিছু ঘটছে তবে গল্পের ফিলিশিং খুব একটা সুন্দর না। আমার রেটিং ৬/১০

  • Sweet Home session 1
  • Genre: Action, Horror, Fantasy
  • IMDb:7.4/10 Pr:8/10
  • Country: South Korea

কোরিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি বরাবরের মতই সবার সেরা

একটার পর একটা মাস্টারপিস বের করে নজর কেরেছে প্রায় ৯০% মানুষের। সত্যি বলতে একপ্রকার তৃপ্তি পাওয়া যায় কোরিয়ান মুভি দেখে। আর সেখানে যদি একটা ১০ পর্বের সিরিজ হয় তাহলে তো সবকিছু জমে খীর ডিসেম্বরের ১৮ তারিখে নেটফ্লিক্সে রিলিজ হয় সিরিজটি।

বছরের শেষে এমন একটা মাস্টারপিস উপহার দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ কোরিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে। সত্যি বলতে একপ্রকার মুভি দেখার ফিল এনে দিবে আপনাকে। কী নেই এই সিরিজে একশান,হরর সব মিলিয়ে জাস্ট এক সেকেন্ডের জন্য মোবাইলের স্কিন থেকে চোখ সরাতে চাইবেন না আপনি।

নাম Sweet Home হলেও অতটা কিন্তু মিস্টি ছিল না। যারা জম্বি টাইপের সিনেমা দেখতে ভালোবাসেন তাদের জন্য মাস্ট ওয়াচ যদিও জম্বি সিনেমা নয় এটি। তবে ভাইরাসের সংক্রমণ একজন সুস্থ মানুষকে কতটা ভয়ানক করে তোলে সেটা দেখানো হয়েছে। প্রত্যেক টা এপিসোড গায়ে কাটা দেয়ার মতন।

নির্দিধায় দেখা শুরু করে দিন আশকরি হতাশ হবেন না💢💢সামান্য স্পয়লার এলার্ট 💢💢 বলতে গেলে খুব তাড়াহুড়ো করেই Shigatsu wa Kimi no Uso বা (Your Lie in Apri) দেখে শেষ করলাম,এইটা 22 পার্টের একটি এনিমি সিরিজ ।

আমরা অনেকেই হয়তো এটা বিশ্বাস করি যে ভূত নেই,কিন্তু তারপরও আমরা অন্ধকারে ভয় পাই,আবার এমন অনেকে আছে যারা কিছু পার্টিকুলার টাইপ গান শুনে অনেক মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে, চোখে পানি চলে আসে। সেরকমই আমার অবস্থা।

এনিমেশন সিরিজ টির সংক্ষিপ্ত বিবরণ:

  • এনিমেশন নাম:- Shigatsu wa Kimi no Uso বা (Your Lie in Apri)
  • পরিচালক:- Kyōhei Ishiguro ।
  • গল্পের লেখক:- Takao Yoshioka।
  • মিউজিক:- Masaru Yokoyama
  • মুভির ধরণ:- এনিমেশন, ড্রামা, রোমাঞ্চ, মিউজিক, বেদনা ।
  • ভাষা:- জাপানিস।
  • বাজেট:- আমার জানা নাই
  • মুক্তির তারিখ:- October 9, 2014 – March 19, 2015
  • এপিসোড:- ২২ টা।

কিছু কিছু মুভি বা সিরিজ আমাদের খুব ইমোশনাল ই কানেক্ট করে। আর ঠিক সেরকমই অ্যানিমেশন সিরিজ হলো Shigatsu wa Kimi no Uso বা (Your Lie in Apri)।

আরে যা মিউজিক ❣️পিয়ানো,ভায়োলিন এর মিউজিক সত্যিই অসাধারন,এত ইমোশনাল হয়ে গেসিলাম যে লাস্ট ২ টা পার্ট দেখতে খুব কষ্ট হচ্ছিলো।
💢💢সামান্য স্পয়লার এলার্ট 💢💢
আপনাদেরকে যত কম পারি তত কমে আমি আপনাদেরকে সংক্ষিপ্ত আকারে কিছুটা স্পয়লার দিয়ে গল্পটা বা অ্যানিমেশন টা দেখার জন্য সাজেস্ট করবো।

গল্পঃ

একটা ছেলে যে এনিমেশনটা মূল ক্যারেক্টার যার নাম হল-Kōsei Arima। ছোট থাকতেই তার মা তাকে পিয়ানো বাজানো শেখানো শুরু করে দেয় এবং সে এতে এতটাই দক্ষ হয় যে লোকজন তাকে মেশিন বলে ডাকতে থাকে এবং সকল কম্পিটিশন সব সময় এই ছোট ছেলে প্রথমত হয়।

কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত হঠাৎ একদিন তার মা মারা যায়, এবং সে পিয়ানো বাজানো ছেড়ে দেয়। আসলে এটাই গল্পের শেষ না, আর এর পরেই গল্পের মূল অংশ শুরু হয় এবং এরপর আরো অনেক কিছু আছে যেমন তার মা মারা যাওয়ার পরে তার লাইক কিভাবে সামনের দিকে এগোতে থাকে তার ফ্রেন্ড সার্কেলের সাথে চলাফেরা মেলামেশা ইত্যাদি।

আসলে অনেকেই মনে করে যে এসব এনিমি থেকে অথবা এসব দেখে এত কষ্ট পাওয়ার কি আছে কান্না করারও কি আছে এবং এগুলো শেয়ার করতে খুবই আনইজি ফিল করে। আশা করি আপনারা সংকোচ বোধ করবেন না অবশ্যই আপনার মতামত কমেন্ট বক্সে জানাবেন এনিমেশন টি আপনার কেমন লাগলো?

এবং এই মুভির রেটিং:

  1. IMDB:- ৮.৬/১০
  2. My Anime list net:- ৮.৮/১০
  3. And last my OM Ratings:- ৮/১০

আর হা এনিমেশন সিরিজ টি দেখার জন্য যে আপনার মিউজিক এর ওপর ক্ষিপ্ত নলেজ থাকতে হবে তা কিন্তু না, আপনি মিউজিক সম্বন্ধে কিছু না জানলেও দেখে খুবই উপভোগ করতে পারবেন। আর আমার লেখায় যদি কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে অবশ্যই ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন। ❤️ হ্যাপি ওয়াচিং❤️

Leave a Reply